শিরোনাম:
পাইকগাছা, সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮
SW News24
সোমবার ● ৩১ মে ২০২১
প্রথম পাতা » ব্যবসা-বাণিজ্য » কেশবপুরে খাদ্যগুদামে ধান বিক্রিতে আগ্রহ নেই কৃষকের
প্রথম পাতা » ব্যবসা-বাণিজ্য » কেশবপুরে খাদ্যগুদামে ধান বিক্রিতে আগ্রহ নেই কৃষকের
১২৪ বার পঠিত
সোমবার ● ৩১ মে ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

কেশবপুরে খাদ্যগুদামে ধান বিক্রিতে আগ্রহ নেই কৃষকের

---

এম আব্দুল করিম, কেশবপুর থেকে:

যশোরের কেশবপুরে খাদ্যগুদামে ধান বিক্রিতে কৃষকদের আগ্রহ না থাকায় ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। উপজেলা খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুনীল কুমার মন্ডল জানান, খাদ্যগুদামে চলতি মৌসুমে ১ হাজার ৬শ ৭৩ মেঃ টন ধান ক্রয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে । সরকারি ক্রয় মূল্য মণ প্রতি ১ হাজার ৮০ টাকা। গত ৯ মে গুদামে ধান ক্রয় শুরু হয়। কিন্তু গুদামে ধান বিক্রিতে কৃষকদের কোনো আগ্রহ নেই। ধানের বর্তমান বাজার দর ও সরকার- নির্ধারিত মূল্য কাছাকাছি ও ক্ষেত্র বিশেষ মূল্য বেশি হওয়ায় গুদামে ধান দেওয়ার ঝামেলা পোহাতে চান না কৃষক। সুত্র আরো জানান গত ২৭ মে পর্যন্ত গুদামে ধান ক্রয় হয়েছে মাত্র ২৩৯ দশমিক ৯২০মেট্রিক টন। উপজেলা কৃষি অধিদফতর সূত্র জানিয়েছে চলতি বোরো মৌসুমে আবাদের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অর্জিত হয়েছে বেশি। লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৪ হাজার হেক্টর জমি। আবাদ হয়েছে ১৫ হাজার ৪শ হেক্টর জমিতে। চলতি মৌসুমে (সরকারি মূল্য অনুযায়ী) ২৮৩ কোটি ২৪ লাখ ৮০ হাজার টাকার চাউল উৎপাদন নির্ধারণ হয়েছে। কৃষক আব্দুল মজিদ জানান কেশবপুরের ৮০ ভাগ কৃষক উচ্চ ফলনশীল হাইব্রিড চিকন ধানের আবাদ করেছে বেশি। বাজারে চিকন ধানের মূল্য পেয়েছি ১১শ ৫০ টাকা থেকে ১১শ ৮০ টাকা। গুদামে ধানের দাম মণ প্রতি ১ হাজার ৮০ টাকা। তাছাড়া বিভিন্ন প্রকার ঝামেলা পোহাতে হয়। এই জন্য গুদামে ধান বিক্রির প্রতি কৃষকের কোনো আগ্রহ নেই। খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা সুনীল কুমার মন্ডল বলেন আগামি ১৬ আগষ্ট মাস পর্যন্ত ধান ক্রয়ের সময়ে আছে এর মধ্যে বিভিন্ন উপায় ম্যানেজ করে প্রয়োজনে মোটা ধান নিয়ে ক্রয়ের টার্গেট পুরুন করা হবে।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)