শিরোনাম:
পাইকগাছা, সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১১ মাঘ ১৪২৮
SW News24
শুক্রবার ● ১০ ডিসেম্বর ২০২১
প্রথম পাতা » ইতিহাস ও ঐতিহ্য » ঢাকা প্রেসক্লাবে কপিলমুনি মুক্ত দিবসের আলোচনা সভা
প্রথম পাতা » ইতিহাস ও ঐতিহ্য » ঢাকা প্রেসক্লাবে কপিলমুনি মুক্ত দিবসের আলোচনা সভা
৫০ বার পঠিত
শুক্রবার ● ১০ ডিসেম্বর ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

ঢাকা প্রেসক্লাবে কপিলমুনি মুক্ত দিবসের আলোচনা সভা

এস ডব্লিউ;---   মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীরা এখনও নানামুখী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। স্বাধীন দেশে বাস করেও তারা দেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নিচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে। বৃহস্পতিবার ৯ ডিসেম্বর বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া’ হলে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ সব কথা বলেন।

মন্ত্রী মোজাম্মেল হক বলেন, মেজর ডালিমরা পালিয়ে বাংলাদেশে আসেন নাই। তারা এসেছিলেন দেশের স্বাধীনতাকে নসাৎ করার জন্য। পরাজয়ের গ্লাণি মুছতে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি ঐক্যবদ্ধ ভাবে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছিলো। এখনও তাদের দোসররাই দেশের মাটিতে ক্রিকেট খেলায় দেশের দলের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে নতুন অস্থিরতা সৃষ্টি করতে চেয়েছে। স্বাধীনতা বিরোধী জঙ্গি শক্তির কাছে পরাজয় নয়, ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিহত করার আহ্বান জানান তিনি।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ বলেন, সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নতুন প্রজন্মকে গড়ে তোলার জন্য নানান কর্মসূচী নিয়েছে। মুক্তিযোদ্ধাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ চলছে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীকে কেন্দ্র করে দেশবাসীর মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে শানিত করার কাজ চলছে। কপিলমুনিতে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি কমপ্লেক্স তৈরির উদ্যোগ নেওয়ার জন্য তিনি কৃজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, দেশের অন্যতম যুদ্ধক্ষেত্র ঐতিহ্যবাহি কপিলমুনিতে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও বাজেট বরাদ্দ প্রদান  করা হলেও এখনো কাজ শুরু হয়নি। বীরাঙ্গনা গুরুদাসির রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দেওয়া হলেও তার স্মৃতি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। নানা জটিলতায় আটকে পড়েছে কপিলমুনি পৌরসভা গঠনের কাজ। মাঝপথে আটকে আছে কপিলমুনি-কানাইদিয়া সেতু নির্মাণ কাজ। সভায় এ সকল বিষয়গুলি উত্থাপন করে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান তারা।

ঐতিহাসিক কপিলমুনি মুক্ত দিবস উদযাপন জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক নিখিল চন্দ্র ভদ্রের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ। আলোচনায়র অংশ নেন যুদ্ধকালীণ কমাণ্ডার সাবেক এমপি ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ড. সাবিনা ইয়াসমিন, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা (স্কাস) চেয়ারম্যান জেসমিন প্রেমা, আওয়ামী যুব লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. রফিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার মাহবুব আলম, মুক্তিযোদ্ধা শুকুর আলী মোড়ল ও শেখ আবুল খায়ের, অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, অনির্বাণ সাহিত্য সাময়িকীর সম্পাদকমণ্ডলীল সদস্য সাকিলা পারভীন, উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন, আলীম সাহিত্য সংসদের সম্পাদক সানজিদুল হাসান, অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলামসহ অন্যান্যরা। অনির্বাণ সাহিত্য সাময়িকীর মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

এরপর আয়োজিত সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠানে যাদু প্রদর্শন করেন, যাদু শিল্পী পিসি সাহা। কবিতা আবৃত্তি করেন, কবি মৃগাঙ্ক সিংহ, কবি সাকিরা পারভীন ও ডা. মহুয়া চন্দ। পাইকগাছা সাংস্কৃতি জোটসহ অন্যান্য শিল্পীরা সংগীত পরিবেশ করেন।

ঐতিহাসিক কপিলমুনি মুক্ত দিবস গত বছর ২০২০ সাল থেকে রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন শুরু হয়। এ উপলক্ষে ঢাকা ছাড়াও কপিলমুনিতে পাইকগাছা উপজেলা প্রশাসন নানা কর্মসূচী পালন করে।



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)