শিরোনাম:
পাইকগাছা, মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১ ভাদ্র ১৪২৯
SW News24
বৃহস্পতিবার ● ৪ আগস্ট ২০২২
প্রথম পাতা » কৃষি » কেশবপুরে অনাবৃষ্টিতে আমন ধান চাষীরা বিপাকে
প্রথম পাতা » কৃষি » কেশবপুরে অনাবৃষ্টিতে আমন ধান চাষীরা বিপাকে
৪৩ বার পঠিত
বৃহস্পতিবার ● ৪ আগস্ট ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

কেশবপুরে অনাবৃষ্টিতে আমন ধান চাষীরা বিপাকে

 এম আব্দুল করিম, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি; ---আষাঢ় শ্রাবণ মাস বাংলাদেশের ঋতু  বৈচিত্রে বর্ষাকাল। কৃষি প্রধান বাংলাদেশের কৃষকের জন্য আমন ধানের চারা রোপনের সুবর্ণ সময় এই বর্ষাকাল। কিন্তু ঋতু পরিক্রমায় আষাঢ় শ্রাবণ মাস বর্ষাকাল হলেও শ্রাবণ মাসেও কেশবপুর ও এর আশ-পাশের উপজেলা গুলোতে বৃষ্টির দেখা নেই। তাই কেশবপুরের কৃষকরা আমন ধানের চারা রোপনে পড়েছে চমর বিপাকে। ভুগর্ভের পানিই তাদের এখন একমাত্র ব্যাস্ত ভরসা। সময় মত বৃষি না হওয়ায় কেশবপুরের ধানচাষীরা বোরো মৌসুমের মত সেচ মটর চালিয়ে ভুগর্ভের পানি তুলে আমন আবাদ শুরু করেছে। বর্তমান যথেষ্ট পরিমান বৃষ্টিপাত না হওয়ায় খাল বিল ডোবা নালা শুকিয়ে গেছে। তাই কৃষকরা উচু-ডোব জমি থেকে পাট কেটে সেই জমিতে সেচের পানি দিয়ে আমন ধান রোপন  শুরু করেছে। অনেকে আবার আকাশের পানির অপেক্ষায় এখনও জমি ফেলে রেখেছেন। কেশবপুরের মাটি পাট চাষের জন্য উপযোগী হওয়ায় অধিকাংশ কৃষকেরা আগাম পাট চাষ করে থাকে। সেই পাট কেটে রোপা আমন ধানর আবাদ করে। কিন্তু এবছর বৃষ্টি কম হওয়ায় কৃষকদের ক্ষেতের পাট কেটে পঁচন দিতে পারছে না।  তাই অনেকেই পাট কাটছে না। কেশবপুরের প্রত্যন্ত অঞ্চল জুড়ে এখন বৃষ্টির জন্য চলছে হা-হা-কার। এবিষয়ে কেশবপুর উপজেলা কৃষি অফিসার ঋতুরাজ সরকার বলেন বলেন, কেশবপুরে এবার সাড়ে ৯হাজার হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধান চাষের লক্ষ্য মাত্রা ধরা হয়েছে। কিন্তু যথেষ্ট পরিমান বৃষ্টিপাত না হওয়ায় লক্ষ্যমাত্র ব্যহত হওয়ার সম্ভবনা দেখা দিয়েছে। তবে কৃষকরা যে ভাবে সেচ দিয়ে আমন আবাদ শুরু করেছে শেষ মুহুর্তে হলেও লক্ষ্য মাত্রা অতিক্রম করতে পারে বলে আশা করছি।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)