শিরোনাম:
পাইকগাছা, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ন ১৪২৯

SW News24
রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
প্রথম পাতা » অপরাধ » ১১ দিন ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সুমাইয়া মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকি, থানায় জিডি
প্রথম পাতা » অপরাধ » ১১ দিন ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সুমাইয়া মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকি, থানায় জিডি
৬৯ বার পঠিত
রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

১১ দিন ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সুমাইয়া মামলা তুলে নিতে হত্যার হুমকি, থানায় জিডি

ফরহাদ খান, নড়াইল;  ---নড়াইল সদর উপজেলার পইলডাঙ্গা গ্রামে স্বামীকে মাদকসেবনে বাঁধা দেয়ায় স্ত্রীর ওপর নির্মম নির্যাতনের ঘটনায় এখনো হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন গৃহবধূ কাজী সুমাইয়া ইসলাম। ১১ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি আছেন তিনি। গত ১৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে স্বামী আশিকসহ শ্বশুর-শাশুড়ি ও ননদ গৃহবধূ সুমাইয়াকে বেদম মারধর করে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় শারীরিক ক্ষত নিয়ে এখনো হাসপাতালের বিছানায় আছেন কাজী সুমাইয়া।

এ তথ্য জানিয়ে ভুক্তভোগী সুমাইয়ার বড় ভাই কাজী রমজান জানান, সুমাইয়া বর্তমানে কিছুটা সুস্থ হলেও ঠিকমত খেতে পারে না। ঠোঁটে এখনো সেলাই রয়েছে। স্বাভাবিক হতে সময় লাগবে। আরও ১৫দিন চিকিৎসাধীন থাকতে হবে বলে চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন।

এদিকে সুমাইয়ার স্বামী আশিক খান, বাবা মুনসুর খানসহ চারজনের নামে দায়েরকৃত মামলা তুলে নিতে নির্যাতিতার বাবা (সুমাইয়া) কাজী নজরুল ইসলাম বাদশাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ভুক্তভোগী নজরুল ইসলাম বাদশা সদর থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। জিডিতে নজরুল ইসলাম উল্লেখ করেছেন, গত ১৮ সেপ্টেম্বর শহরের শেখ রাসেল সেতুর কাছে পৌঁছালে বিবাদিসহ (সুমাইয়ার শ্বশুর) অজ্ঞাতনামা তিন থেকে চারজন লোক মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দেয়। মামলা তুলে না নেয়া হলে খুন-জখম করবে মর্মে শাসিয়ে যায়।  

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১১ মাস আগে নড়াইল সদরের পইলডাঙ্গা গ্রামের মনসুর খানের ছেলে আশিক খানের সঙ্গে লোহাগড়া উপজেলার শামুকখোলা গ্রামের নজরুল ইসলাম বাদশার মেয়ে কাজী সুমাইয়া ইসলামের বিয়ে হয়। বিয়ের পর সুমাইয়া জানতে পারেন তার স্বামী মাদকাসক্ত। সংসারে সুখের কথা বিবেচনায় স্বামীর মাদকাসক্তের বিষয়টি গোপন রাখলেও পরে তা জানাজানি হয়ে যায়। স্বামীকে মাদক থেকে দুরে রাখার জন্য অনেক চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন সুমাইয়া। এ কারণে প্রায়ই সুমাইয়াকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন সহ্য করতে হতো। এরই জের ধরে গত ১৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে আশিক তার স্ত্রীকে কিল-ঘুষি ছাড়াও রড দিয়ে বেদম মারধর করে পালিয়ে যায়।

এদিকে, আশিকের বাবা-মা ছেলে শাসন করেন না বলে অভিযোগ করেন গৃহবধূ সুমাইয়া। বরং সুমাইয়ার শ্বশুর-শাশুড়ি ও ননদ তাকে প্রায়ই শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন করেন।

অন্যদিকে, প্রায় ছয় মাস আগে হঠাৎ করে আর-ওয়ান ফাইভ মোটরসাইকেলের জন্য বাহানা শুরু করে অভিযুক্ত আশিক খান।
মোটরসাইকেলের এ আবদার পূরণ করতে দেরি হওয়ায় সুমাইয়ার ওপর নির্যাতনের মাত্রা আরো বেড়ে যায়।

গৃহবধূ সুমাইয়া বাবা অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য নজরুল ইসলাম বাদশা বলেন, বিয়ের দুই মাস পর থেকেই আমার মেয়ের ওপর নির্যাতন শুরু হয়েছে। জামাই আশিক প্রায়ই সুমাইয়াকে মারধর করে। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার পারিবারিক ভাবে শালিস হয়েছে। তবে আশিকের নির্যাতন বন্ধ হয়নি। সর্বশেষ ১৫ সেপ্টেম্বর আমার মেয়েকে রড দিয়ে বেদম মারধর করে আশিক। এতে তার তিনটি দাঁত ভেঙ্গে গেছে। ঠোঁটে ১০টি সেলাই দিতে হয়েছে। মাথা, পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত রয়েছে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। মেধাবী সুমাইয়া ইসলাম লোহাগড়া সরকারি আদর্শ কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী। এসএসসিতে জিপিএ-৪ পেয়েছিল। স্বামী আশিক নড়াইলে নির্মাণাধীন রেলওয়ে প্রকল্পে চীনাদের সঙ্গে দোভাষী হিসেবে কাজ করত।

সুমাইয়ার বড় ভাই কাজী রমজান বলেন, আমার বোনকে নির্যাতনের ঘটনায় আশিকসহ তার বাবা-মা ও বোনের নামে পরদিন (১৬ সেপ্টেম্বর) রাতে সদর থানায় মামলা হয়েছে। এরপর আসামিরা গত ১৮ সেপ্টেম্বর আদালতে হাজির হলে মূল অভিযুক্ত আশিককে বিজ্ঞ বিচারক কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিলেও অন্যরা জামিন পান। আদালত থেকে বের হয়ে ওইদিনই (১৮ সেপ্টেম্বর) আশিকের বাবা মনসুর খান আমার বাবাকে (কাজী নজরুল ইসলাম) মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দিয়েছে। বিভিন্ন সময় আশিকের আত্মীয়-স্বজন আমাকেও মামলা তোলার জন্য হুমকি দিচ্ছে।

সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাক্তার পার্থ সারথি রায় জানান, সুমাইয়ার মাথা, ঠোঁটসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। তার সিটিস্ক্যানসহ বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরিক্ষা হয়েছে। এখনো চিকিৎসা চলছে।

নড়াইল সদর থানার ওসি (চলতি দায়িত্ব) মাহমুদুর রহমান বলেন, ভূক্তভোগী গৃহবধূর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। আর জিডির বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 





অপরাধ এর আরও খবর

পাইকগাছায় খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর অনিয়ম ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে ইউএনও : এবার ডিলারকে জেল জরিমানা পাইকগাছায় খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর অনিয়ম ঠেকাতে কঠোর অবস্থানে ইউএনও : এবার ডিলারকে জেল জরিমানা
পাইকগাছায় ওজনে কম দেওয়ায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলারকে জরিমানা পাইকগাছায় ওজনে কম দেওয়ায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলারকে জরিমানা
পাইকগাছায় ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে স্থাপনা নির্মাণ কাজ করার অভিযোগে আটক-২ পাইকগাছায় ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে স্থাপনা নির্মাণ কাজ করার অভিযোগে আটক-২
পাইকগাছায় নার্সারী ব্যবসায়ীকে প্রাণনাশের হুমকি; থানায় জিডি পাইকগাছায় নার্সারী ব্যবসায়ীকে প্রাণনাশের হুমকি; থানায় জিডি
পাইকগাছায় অনারারী ক্যাপ্টেন অবঃ মোহন লাল দাশের জমি জবর দখল; থানায় অভিযোগ পাইকগাছায় অনারারী ক্যাপ্টেন অবঃ মোহন লাল দাশের জমি জবর দখল; থানায় অভিযোগ
পাইকগাছায় ২১টি কচ্ছপসহ শিকারী আটকঃ দু হাজার টাকা অর্থদন্ড পাইকগাছায় ২১টি কচ্ছপসহ শিকারী আটকঃ দু হাজার টাকা অর্থদন্ড
নড়াইলে বসতবাড়ি ও দোকানিদের পথ আটকে দেয়ার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন নড়াইলে বসতবাড়ি ও দোকানিদের পথ আটকে দেয়ার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন
পাইকগাছায় স্কুল শিক্ষককে মারপিট; থানায় অভিযোগ পাইকগাছায় স্কুল শিক্ষককে মারপিট; থানায় অভিযোগ
পাইকগাছায় একের পর এক চুরি! জনমনে চোর আতঙ্ক বিরাজ করছে পাইকগাছায় একের পর এক চুরি! জনমনে চোর আতঙ্ক বিরাজ করছে
পাইকগাছায় গদাইপুর কমিউনিটি ক্লিনিকে চুরি পাইকগাছায় গদাইপুর কমিউনিটি ক্লিনিকে চুরি

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)