শিরোনাম:
পাইকগাছা, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

SW News24
শনিবার ● ১৩ নভেম্বর ২০২১
প্রথম পাতা » অপরাধ » আশাশুনির চাপড়ায় মেইন সড়কে বালির স্তুপে দুর্ঘনায় আহত-৮
প্রথম পাতা » অপরাধ » আশাশুনির চাপড়ায় মেইন সড়কে বালির স্তুপে দুর্ঘনায় আহত-৮
৩৭২ বার পঠিত
শনিবার ● ১৩ নভেম্বর ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

আশাশুনির চাপড়ায় মেইন সড়কে বালির স্তুপে দুর্ঘনায় আহত-৮

---

আশাশুনি  : আশাশুনির চাপড়া টু সাতক্ষীরা সড়কে যত্রতত্র অবৈধভাবে বালি রাখায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৭/৮ জন আহত হয়েছে। মেইন সড়কের উপর বালি রাখায় অহরহ দূঘটনা ঘটলেও কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় যানবাহন চালক, পথচারী ও যাত্রী সাধারণের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

চাপড়া টু সাতক্ষীরা সড়কের বিভিন্ন স্থানে বালি, পাথরের খোয়াসহ নানা রকমের মালামাল রাখা হয়ে থাকে। ফলে যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি ও যানজটের পাশাপাশি নিয়মিত সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে আসছে। চাপড়া বেইলী ব্রীজ দুর্বল হয়ে পড়ায় অতিরিক্ত মালামাল বোঝাই ট্রাক অধিকাংশ সময় ব্রীজ পার হতে দেওয়া হয়না। ফলে এ পথে আসা অনেক ট্রাক চাপড়া প্রান্তে সড়কের উপর দাড়িয়ে মালামাল খালাস করে থাকে। অনেক ট্রাক থেকে মালামাল সড়কের উপরও খালাস করতে দেখা যায়। এতে যানজট, চলাচলে বিঘœতা সৃষ্টি ও সড়ক দুর্ঘটনা অহরহ ঘটে থাকে। তারপরও খুবই ব্যস্ততম সড়কের উপরে মালামাল রাখা ও খালাস করা থেকে বিরত রাখতে কোন পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়নি। ইতোপূর্বে সড়কের উপর রাখা বাঁশ বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় আশাশুনি থানার একজন পুলিশ কর্মকর্তা বুকে বাঁশ বিধে ঘটনাস্থলেই মারা যান। এছাড়া আরও অনেক অঘটন এখানে ঘটে চলেছে। গত শুক্রবার একই স্থানে দু’টি ট্রাক থেকে সড়কের উপরেই বালি খালাস করে রাখে। বালি সড়কের অর্ধেকের বেশী জুড়ে ফেলে রাখা হয়, আর ক্রমে ক্রমে তা পুরো সড়ক জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে। শুক্রবার রাতেই সিলেকশান বালি ছড়িয়ে থাকা সড়কের উপর যানবাহন বিশেষ করে মটর সাইকেল স্লিপ করে আশাশুনি প্রেসক্লাব সভাপতি এস,এম আহসান হাবিবসহ কয়েকজন দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে কম বেশী আহত হয়। তারপরও বালি সরানো হয়নি। শনিবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত একই ভাবে ৫/৬টি দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়। এসব দুর্ঘটনায় আশাশুনি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এস.কে হাসানসহ ৭/৮ জন দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে আহত হয়। এসকে হাসানকে আশাশুনি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। বিষয়টি আশাশুনি থানাকে অবহিত করা হলে ওসি মু. গোলাম কবির তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ নেওয়ায় সন্ধ্যার মধ্যে বালি সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল হুসেইন খাঁনের সাথে বারং বার মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলেও রিসিভ না হওয়ায় কথা বলা সম্ভব হয়নি। এছাড়া আশাশুনি পারের পাউবো’র অফিস মোড়ে কামারের দোকানের সামনে চলাচলের একমাত্র রাস্তার উপর বালি রেখে রাস্তা বিনষ্ট করাসহ চলাচলে দারুন ভাবে বিগ্ন সৃষ্টি করে চলেছে জনৈক এক ব্যবসী। সে ব্যাপারেও কর্তৃপক্ষকে অদ্যবদি কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি। এব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহনের পাশাপাশি আর যাতে সড়ক দখলে নিয়ে বালি বা কোন মালামাল ও সরঞ্জমান রাখা না হয় সে ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ জন প্রতিনিধিদের কাছে ভূক্তভোগী এলাকাবাসী জোর দাবি জানিয়েছেন।





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)