শিরোনাম:
পাইকগাছা, বুধবার, ৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯
SW News24
শুক্রবার ● ৫ অক্টোবর ২০১৮
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » নতুন প্রজন্মের দায়িত্ব বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ারঃ প্রধানমন্ত্রী
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » নতুন প্রজন্মের দায়িত্ব বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ারঃ প্রধানমন্ত্রী
৩৭০ বার পঠিত
শুক্রবার ● ৫ অক্টোবর ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

নতুন প্রজন্মের দায়িত্ব বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ারঃ প্রধানমন্ত্রী

---

এস ডব্লিউ নিউজ।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাঁর সরকারের লক্ষ্যই হচ্ছে এমন একটি দেশ গড়ে তোলা যেখানে কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না, কেউ না খেয়ে-বিনা চিকিৎসায় মারা যাবে না এবং সকলেই সুন্দরভাবে জীবন যাপনের সুযোগ পাবে।
তিনি বলেন, ‘২০২০ সালে আমরা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করবো, আর স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করবো ২০২১ সালে; সে সময়ে বাংলাদেশ হবে একটি ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ। আর ২০৪১ সালে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার একটি উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে উঠবে, সেভাবেই আমরা আমাদের পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন অব্যাহত রেখেছি।’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুক্রবার সকালে তাঁর সরকারী বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশব্যাপী ৪র্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনকালে একথা বলেন।
জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।
শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং এই অগ্রযাত্রা যেন ব্যাহত না হয়, এটা যেন অব্যাহত থাকে। তাহলেই ধাপে ধাপে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।
নতুন প্রজন্মেরই এখন দায়িত্ব বাংলাদেশ এগিয়ে নেয়ার এ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যত এবং তারাই দেশকে আগামীতে এগিয়ে নিয়ে যাবে।
তিনি বলেন, আজকের তরুণ আগামী দিনে হবে এদেশের কর্ণধার।
প্রধানমন্ত্রী এই উন্নয়ন মেলা তরুণ প্রজন্মের জন্য উৎসর্গ করে বলেন, তারা যেন নিজের জীবনকে সুন্দরভাবে গড়তে পারে। সন্ত্রাস, মাদক বা জঙ্গিবাদ- এসব থেকে মুক্ত থেকে তাঁরা নিজেদের সুন্দরভাবে গড়ে তুলবে, সেটাই আমাদের প্রত্যাশা।
ভিডিও কনফারেন্সের সঙ্গে ৪টি উপজেলা এবং দেশব্যাপী ৫শতাধিক বিভিন্ন বিভাগীয় শহর, জেলা-উপজেলার উন্নয়ন মেলাগুলো এবং ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারসমূহ সংযুক্ত ছিল।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন এবং গত ১০ বছরে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের ভিডিও চিত্র উপস্থাপন করেন। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান ভিডিও কনফারেন্সটি সঞ্চালনা করেন।
উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনের পর বরগুণা জেলার আমতলী উপজেলা,বাঘেরহাটের ফকিরহাট, নড়াইল জেলার লোহাগড়া এবং রংপুরের পীরগঞ্জের স্থানীয় জনসাধারণের সঙ্গে মতবিনিময় করেন প্রধানমন্ত্রী ।
শিক্ষা সমাপ্ত করার পর তরুণ প্রজন্মের কর্মসংস্থান এবং আয় রোজগারের পথ ও পাথেয়’র দিক নির্দেশনা প্রদানে সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে এবার নিয়ে ৪র্থবারের মত সারাদেশে উন্নয়ন মেলার আয়োজন করেছে সরকার।
ঢাকার আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা প্রাঙ্গণ এবং প্রত্যেক জেলা ও উপজেলায় তিনদিন ব্যাপী এই মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বাসস।



প্রধান সংবাদ এর আরও খবর

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত প্রধানমন্ত্রীর পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত প্রধানমন্ত্রীর
পদ্মা সেতু উদ্বোধন, স্বপ্ন হল সত্যি পদ্মা সেতু উদ্বোধন, স্বপ্ন হল সত্যি
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী
সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থাপনা আইনের খসড়া মন্ত্রিসভা অনুমোদন সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থাপনা আইনের খসড়া মন্ত্রিসভা অনুমোদন
পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যবহৃত যন্ত্রের  জাদুঘর বানাতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যবহৃত যন্ত্রের জাদুঘর বানাতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
চাপে পড়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমাকে মুক্তি দিয়েছিল : প্রধানমন্ত্রী চাপে পড়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমাকে মুক্তি দিয়েছিল : প্রধানমন্ত্রী
জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় অতিরিক্ত ১ হাজার মিলিয়ন মার্কিন ডলার বাজেট সাপোর্ট সংগ্রহের প্রক্রিয়া শুরু : সংসদে প্রধানমন্ত্রী জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় অতিরিক্ত ১ হাজার মিলিয়ন মার্কিন ডলার বাজেট সাপোর্ট সংগ্রহের প্রক্রিয়া শুরু : সংসদে প্রধানমন্ত্রী
একনেকে দুই হাজার ৬৬৫ কোটি টাকার ৯ প্রকল্প অনুমোদন একনেকে দুই হাজার ৬৬৫ কোটি টাকার ৯ প্রকল্প অনুমোদন
নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করায় দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করায় দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)