শিরোনাম:
পাইকগাছা, বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯
SW News24
মঙ্গলবার ● ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
প্রথম পাতা » লাইফস্টাইল » মাগুরায় পিঠা বিক্রির আয়ে চলে সেলিমের সংসার
প্রথম পাতা » লাইফস্টাইল » মাগুরায় পিঠা বিক্রির আয়ে চলে সেলিমের সংসার
৬১৪ বার পঠিত
মঙ্গলবার ● ১১ ডিসেম্বর ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

মাগুরায় পিঠা বিক্রির আয়ে চলে সেলিমের সংসার

---

মাগুরা প্রতিনিধি:

মাগুরা শহরের পারনান্দুয়ালী গ্রামের সেলিম মিয়া দীর্ঘ ১০বছর ধরে পিঠা বিক্রির সাথে জড়িত। কেবল পিঠা নয় তিনি বিক্রি করেন নানা মুখরোচক সব খাবার। আর এ আয় থেকেই চলে তার সংসারের যাবতীয় ব্যয়ভার। সংসারের সব খরচ মিটিয়ে বছরে প্রায় ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা সঞ্চয় করেন তিনি।

শহরের জনবহুল এলাকাতেই তিনি এ ব্যবসা চালিযে আসছেন দীর্ঘ দিন ধরে। বিশেষ করে শীত এলেই যেন তার ব্যস্ততা বেড়ে যায়। ভাপাপিঠা, চিতইপিঠা ছাড়াও ফুচকা, পিয়াজু, চপসহ বিক্রি করেন মুখরোচক সব খাবার। সেলিম মিয়ার পিঠা মানেই ভোজন রসিকদের কাছে খাবারের অন্য রকম স্বাদ। নিজের ভ্যান গাড়িতে করে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত অব্দি এসব খাবার বিক্রি করেন তিনি। প্রতিদিন পিঠা বিক্রি করে ২ থেকে আড়াই হাজার টাকা উপার্জন হয় তার। পিঠা তৈরীর জন্য নানা উপকরন সংগ্রহ করেন সেলিমের স্ত্রী মর্জিনা বেগম।

 কথা প্রসঙ্গে সেলিম মিয়া জানান, প্রতিদিন সকালে জীবিকার প্রয়োজনে ঘর থেকে বেরিয়ে আসি। বাবার রেখে যাওয়া ৩ শতাংশ জমি ছাড়া আর কিছু নেই আমার। এ কাজ করার আগে আমি বাবুর্চি এবং রাজ মিস্ত্রির কাজ করতাম। দীর্ঘ ৮ বছর বগুড়া শহরের বিভিন্ন জায়গাতেও আমি পিঠা বিক্রি করেছি। এক ছেলে ও দুই মেয়ে আর স্ত্রীকে নিয়ে আমার সংসার। দুই মেয়েকে বিয়ে দিয়েছি। ছেলে মটর গ্যারেজে মিস্ত্রির কাজ করে।

ভাপা পিঠ তৈরীর জন্য সাধারণত উপকরন হিসেবে লাগে চালের গুড়া, গুড় বা পাটালী, নারকেল স্বাদ বাড়াতে চেরিফল এবং কুমড়া (আঞ্চলিক ভাষায় চাল কুমড়া) দিয়ে বিশেষ ভাবে তৈরী মোরব্বা। এ সব উপকরন দিয়ে তবেই তৈলী করা হয় সুস্বাদু ভাপাপিঠা। প্রতি পিস পিঠা ১০টাকা করে বিক্রি করি। প্রতিদিন ২ থেকে আড়াই শত পিঠা বিক্রি হয়। খরচ বাদে সঞ্চিত অর্থ দিয়ে চলে আমার সংসারের যাবতীয় ব্যয়ভার।

 



লাইফস্টাইল এর আরও খবর

কত টাকার স্বর্ণ ও সম্পত্তি রেখে চিরবিদায় নিলেন সংগীতশিল্পী বাপ্পি লাহিড়ী কত টাকার স্বর্ণ ও সম্পত্তি রেখে চিরবিদায় নিলেন সংগীতশিল্পী বাপ্পি লাহিড়ী
নড়াইলে ভাসমান বেদে সম্প্রদায়ের শিক্ষা ও জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে আলোচনা সভা নড়াইলে ভাসমান বেদে সম্প্রদায়ের শিক্ষা ও জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে আলোচনা সভা
জালে ১০ মণ ওজনের ‘শাপলা পাতা’, ভাগ্য খুলল জেলের জালে ১০ মণ ওজনের ‘শাপলা পাতা’, ভাগ্য খুলল জেলের
দেশে গড় আয়ু বেড়েছে, পুরুষের চেয়ে নারীর ২ বছর বেশি দেশে গড় আয়ু বেড়েছে, পুরুষের চেয়ে নারীর ২ বছর বেশি
ভ্যানের চাকায় সংসার চলে পাইকগাছার ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আফিল গাজী’র ভ্যানের চাকায় সংসার চলে পাইকগাছার ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আফিল গাজী’র
এক যুগে যুগলবন্দী মাশরাফি ও সুমি এক যুগে যুগলবন্দী মাশরাফি ও সুমি
নিজের রক্ত দিয়ে ২৪ লাখ শিশুর জীবন বাঁচিয়েছেন নিজের রক্ত দিয়ে ২৪ লাখ শিশুর জীবন বাঁচিয়েছেন
ডুমুরিয়ায় ভাল নেই কুমার পাড়ার লোকেরা ঃ হারিয়ে যাচ্ছে মৃৎ শিল্প ডুমুরিয়ায় ভাল নেই কুমার পাড়ার লোকেরা ঃ হারিয়ে যাচ্ছে মৃৎ শিল্প
প্রাইভেটের টাকা জমিয়ে ইংরেজি বই প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ! সাড়া ফেলেছে জীবনযুদ্ধে অপরাজিত শিক্ষার্থী আহাদের ইংলিশ ল্যাগুয়েস বুক প্রাইভেটের টাকা জমিয়ে ইংরেজি বই প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ! সাড়া ফেলেছে জীবনযুদ্ধে অপরাজিত শিক্ষার্থী আহাদের ইংলিশ ল্যাগুয়েস বুক

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)