শিরোনাম:
পাইকগাছা, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১

SW News24
রবিবার ● ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
প্রথম পাতা » ব্যবসা-বাণিজ্য » কেশবপুরে জীবিকায়ন শিল্পপল্লীতে স্বপ্ন দেখছে নতুন জীবনের
প্রথম পাতা » ব্যবসা-বাণিজ্য » কেশবপুরে জীবিকায়ন শিল্পপল্লীতে স্বপ্ন দেখছে নতুন জীবনের
১১৫ বার পঠিত
রবিবার ● ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

কেশবপুরে জীবিকায়ন শিল্পপল্লীতে স্বপ্ন দেখছে নতুন জীবনের

---

এম আব্দুল করিম, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের কেশবপুর উপজেলার আলতাপোল তেইশ মাইল গ্রামের প্রায় ২ হাজার নারী ও পুরুষ কুটির শিল্পকে অবলম্বন সাথে করে তাদের জীবন জীবিকা নির্বাহ করছেন প্রায় দুই যুগেরও বেশী সময় ধরে। এ দীর্ঘ সময় ধরে সহ¯্রাধিক পরিবার এই কুটির শিল্পকে আকড়ে ধরে পড়ে থাকায় বিষয়টি সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। ফলে এসব পরিবারে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করতে গত কয়েক বছর আগে এই এলাকাকে জীবিকায়ন শিল্পপল্লী ঘোষনা করা হয়। যার উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্রাচার্য্য। এ জীবিকায়ন শিল্পপল্লী প্রতিষ্ঠা হওয়ায় এখন এই পল্লীর প্রায় ৬ শতাধিক পরিবার সরকারি অর্থ ও প্রশিক্ষণ সহায়তায় নিজেদের ব্যবসার উন্নয়ন করার সুযোগ পাবে। সম্প্রতি বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ডের পল্লী জীবিকায়ন প্রকল্প-৩ এর আওতায় এই গ্রামকে কারুশিল্প পল্লী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

এই কারু পল্লীতে কাঠ দিয়ে তৈরি হয় ফুলদানি, কলস, বাটি, পাউডার কেস, বয়াম, ডিম সেট, আপেল সেট, খুনতি, হামাম, পিঁড়ে, বেলান, অ্যাশট্রে, মোমদানি, হারিকেন, পেন্সিল ফুলদানি, চরকা, ধামাপাতি, কয়েরদানি, টিফিন বক্স, ব্যাংক, সিঁদুর বাক্স সহ প্রয়োজনীয় নানা সামগ্রী। যা দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হয়। আর এই পেশায় তাদের সংসারে ফিরেছে সুদিন। তাই এই পেশার সাথে জড়িতরা নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন।

একটি কুটির শিল্পর মালিক কবির হোসেন বলেন, আমাদের এখানে পেন্সিলদানি, ফুলদানি, চরকা, খুনতি, হামাম, বয়েম, পিঁড়ে, বেলান, অ্যাশট্রে, ব্যাংক, ধামাপাতি, কয়েরদানি, টিফিন বক্সসহ প্রায় শতাধিক রকমের উপকরণ তৈরি করা হয়। ১০ জন শ্রমিক প্রতিদিন এ কারখানায় কাজ করেন। কাজের মুজুরী হিসেবে ৪শত থেকে ৫শত টাকা পারিশ্রমিক পেয়ে থাকেন। মোশারফ হোসেন দুলু জানান, উৎপাদিত পণ্যগুলো বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করা হয়। তবে ফেনী, রংপুর, কুমিল্লা ময়মনসিংহ, কুষ্টিয়া, বাগেরহাট এলাকায় বেশি সরবরাহ করা হয়। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তুহিন হোসেন বলেন, বিআরডিবি জীকিকায়ন শিল্পপল্লীর আওতায় তাদের সমস্যাসমূহ চিহিৃত করে প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি, প্রশিক্ষণ ও আর্থিক সহায়তাসহ বিভিন্ন প্রমোশনাল সহায়তার সুযোগ রয়েছে যদি তার চান।





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)