শিরোনাম:
পাইকগাছা, শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ন ১৪২৯

SW News24
সোমবার ● ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
প্রথম পাতা » ব্যবসা-বাণিজ্য » পাইকগাছায় পূজোর বাজার জমে উঠেছে
প্রথম পাতা » ব্যবসা-বাণিজ্য » পাইকগাছায় পূজোর বাজার জমে উঠেছে
৯২ বার পঠিত
সোমবার ● ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

পাইকগাছায় পূজোর বাজার জমে উঠেছে

পাইকগাছায় শেষ সময়ে পূজোর বাজার জমে উঠেছে। আগামী ১ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের পাঁচ দিন ব্যাপী প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। পূজার আগে মা দুর্গাকে সাজাতে, কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা।  বাজার থেকে শাখা, শঙ্খ, প্রতিমা কাপড়, কিত্তনের মালা, কদম মালা, ঘণ্টা, ঘট, প্রদীপ, আগরদানি, ঠাকুরের মালা, জবের মালা, মুকুট, ধুতি, পাঞ্জাবিসহ পূজার নানা উপকরন ও জিনিসপত্র কেনাকাটা করছেন তারা।

পূজার নতুন শাড়ি-কাপড়, কসমেটিকস সহ পুজোর সকল উপকরণ  বিক্রির ধুম পড়েছে।  উপজেলার পৈৗর বাজার ও কপিলমুনিসহ বিভিন্ন হাট-বাজারে শেষ সময়ে  নতুন শাড়ি, তৈরি পোশাক ও কসমেটিকসের দোকানে কেনাকাটার জন্য ভিড় করছেন।বিক্রেতারা জানান, এবারের পূজার বাজারে মেয়েদের থ্রী-পিস, কামিজ- সেলোয়ার, স্কার্ট-টপস, লেহেঙ্গা, বারবিকিউ শাড়ি, কাতান শাড়ি, সিল্ক শাড়ি। ছেলেদের ফতোয়া, পাঞ্জাবি-পায়জামা, ফুল-শার্ট, ফুল-প্যান্ট, টি-শার্ট ও জিন্স এবং বাচ্চাদের নানা রঙ ও ডিজাইনের পোশাকের সমাহার রয়েছে বিভিন্ন শপিংমলগুলোতে। 

পূজোর কেনাকাটা করতে আসা ক্রেতা কাকালী বলেন,পৈৗর বাজার কাপড় পট্টির দেকান গুলোতে শাড়ি,থ্রিপিসসহ জামা-কাপড়ের দাম কম হওয়ায় নিম্ন আয়ের মানুষ সেখান থেকেই চাহিদা অনুযায়ী পরিবারের সদস্যদের জন্য বেশি কেনাকাটা করছেন। তবে  এ বছর শাড়ি,থ্রিপিসের সহ বিভিন্ন কাপড়ের দাম বেশি। তাই  বাজার কাপড় পট্টির দোকানে দাম কম হওয়ায় তাঁরা সেখান থেকে জামা-কাপড় কিনছেন। পূজার আগে পোশাকের দাম স্বাভাবিক থাকলেও পূজার সময় ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন পোশাকের দাম বাড়িয়ে দেন। ফলে বাধ্য হয়ে অনেক বেশি দামে পোশাক কিনতে হচ্ছে ক্রেতাদের। শেষ সময়ে কাপড়ের দোকানগুলোতে পছন্দের কাপড় হয়তো নাও থাকতে পারে। সেই জন্য অনেক ক্রেতা আগেভাগেই পোশাক কিনে নিয়েছেন।

ব্যবসায়ীরা জানালেন, পূজা উপলক্ষে অভিজাত মার্কেট ও  দোকানগুলোতে নতুন পোশাক, জুতা আর কসমেটিকসের ব্যাপক সমারহ থাকলেও,   মানুষের আয় কম থাকায় ক্রেতাদের ভিড় একটু কম বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এবার দেশি পোশাকের পাশাপাশি মেয়েদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে ভারতীয় থ্রিপিস। ভারতীয় শাড়ির পাশাপাশি ঢাকাই জামদানি শাড়ির বেশ কদর রয়েছে।কালেকশনে রয়েছে শাড়ি, কুর্তি, লংগাউন, আনারকলি।---ডিজাইনের মূল মোটিফ দুর্গা, স্বস্তিকা ও ত্রিশূল। কাজের মাধ্যম ব্লক, হ্যান্ড পেইন্ট, অ্যামব্রয়ডারি, কাটওয়ার্ক ইত্যাদি। বাচ্চাদের পছন্দের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের  বাহারী ডিজাইনের জামা-কাপড়। পুরুষের তুলনায় বিপণিবিতানগুলোতে নারী ক্রেতার ভিড় বেশি। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে দোকানগুলোতে আলোকসজ্জা করা হয়েছে।

উপজেলার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, দোকানগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। দুই-এক দিনের মধ্যে ক্রেতাদের ভিড় আরও বাড়বে বলে আশা করা হচ্ছে। এ বিক্রি চলবে পূজা পরবর্তী এক সপ্তাহ পর্যন্ত বিশেষ করে লক্ষ্মী পূজা পর্যন্ত। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ অন্যবারের তুলনায় এবার দাম একটু বেশি নিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। 

 





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)