শিরোনাম:
পাইকগাছা, শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩ আশ্বিন ১৪২৮
SW News24
শনিবার ● ২৪ জুলাই ২০২১
প্রথম পাতা » কৃষি » কয়রায় আশ্রয় কেন্দ্রের ২৫ টি পরিবারের মাঝে নারিকেল গাছের চারা বিতরণ
প্রথম পাতা » কৃষি » কয়রায় আশ্রয় কেন্দ্রের ২৫ টি পরিবারের মাঝে নারিকেল গাছের চারা বিতরণ
৯১ বার পঠিত
শনিবার ● ২৪ জুলাই ২০২১
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

কয়রায় আশ্রয় কেন্দ্রের ২৫ টি পরিবারের মাঝে নারিকেল গাছের চারা বিতরণ



রামপ্রসাদ সরদার, কয়রা: ---   
বাংলাদেশ কৃষি গভেষণা ইনস্টিটিউট সরেজমিন গভেষণা বিভাগ ও গােপালগঞ্জ জেলায় বিএআরআই এর কৃষি গভেষণা কেন্দ্র স্থাপন ও দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের পরিবেশ প্রতিবেশ উপযােগী গভেষণা কার্যক্রম জােরদার করণের মাধ্যমে কৃষি উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের অর্থায়নে  কয়রায় মুজিব শতবর্ষে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ২৫ টি গৃহহীন পরিবারের মাঝে নারিকেল গাছের চারা বিতরণ করা হয়েছে।  
২৫ জুলাই শনিবার বলা ১১ টায় উপজেলার আমাদী ইউনিয়নের নাকশা ও  মহারাজপুর ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রাম সরকারের খাস জমিতে সদ্য নির্মিত  গৃহহীন পরিবারের ঘরের আশেপাশে ১০০ টি নারিকেল গাছের চারা রােপন করা হয়। নারিকেল গাছের চারা বিতরণকাল অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ কৃষি গভেষণা ইনস্টিটিউট সরেজমিন গভেষণা বিভাগ খুলনার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডঃ হারুনর রশিদ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কপাতাক্ষ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ অদ্রীশ আদিত্য মণ্ডল, বৈজ্ঞানিক সহকারি জাহিদ হাসান, সাংবাদিক শাহজাহান  সিরাজ, এ্যাডঃ আনিছুর রহমান, স্থানীয় ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমানসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। 
অনুষ্ঠানে সরেজমিন গভেষণার প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডঃ হারুনর রশিদ বলেন,  নারিকেল গাছের চারা রােপণ ও তার রক্ষণাবেক্ষণ করবেন সরেজমিন গভেষণা বিভাগ এমএলটি সাইট কয়রা। এ ছাড়া কয়রায় মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে পাওয়া সকল গৃহহীন পরিবারের ঘরের আশে পাশে নারিকেল সহ বিভিন্ন জাতের চারা রােপণ করা হবে এবং শাক-সব্জী চাষের জন্য সার্বিক সহযােগীতা করা হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস বলেন,  সদ্য পাওয়া এসব ঘরের মালিকদের সরকারের এই করােনাকালীন সময় যেসব সুযাগ সুবিধা পাওয়া যাবে তা  এ সকল পরিবারের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে আগে দেওয়া হবে। তিনি আরো বলেন, পর্যায়ক্রমে উপজেলার সকল ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারে ভূমি ও গহ নির্মাণ করা হবে। এ জন্য সরকারের নির্দেশনা আছে।



আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)