শিরোনাম:
পাইকগাছা, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১

SW News24
শুক্রবার ● ২৮ জুন ২০২৪
প্রথম পাতা » বিশেষ সংবাদ » বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের নিপীড়নে ডিএসএ’র ব্যবহারে উদ্বেগ যুক্তরাষ্ট্রের
প্রথম পাতা » বিশেষ সংবাদ » বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের নিপীড়নে ডিএসএ’র ব্যবহারে উদ্বেগ যুক্তরাষ্ট্রের
৫৩ বার পঠিত
শুক্রবার ● ২৮ জুন ২০২৪
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের নিপীড়নে ডিএসএ’র ব্যবহারে উদ্বেগ যুক্তরাষ্ট্রের

---  বাংলাদেশের সংবিধানে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম রেখে ধর্মনিরপেক্ষতার নীতিকে সমর্থন ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা-নিপীড়ন অব্যাহত রয়েছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের (ডিএসএ) মতো আইন ব্যবহার করে মুসলিম জনগোষ্ঠীর ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের’ অভিযোগে ধর্মীয় সংখ্যালঘু গোষ্ঠীর সদস্যদের, বিশেষ করে হিন্দুদের লক্ষ্যবস্তু করা হচ্ছে। 
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ‘রিপোর্ট অন ইন্টারন্যাশনাল রিলিজিয়াস ফ্রিডম-২০২৩’ প্রতিবেদনে বাংলাদেশ বিষয়ে এমনটি বলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের ‘অফিস অব ইন্টারন্যাশনাল রিলিজিয়াস ফ্রিডম’ এই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।প্রতিবেদনের সারসংক্ষেপে বলা হয়, বাংলাদেশের সংবিধানে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে উলে­খ করা হলেও ধর্মনিরপেক্ষতার নীতিকে সমর্থন করা হয়। ধর্মীয় বৈষম্যকে নিষিদ্ধ করে এবং সব ধর্মের অনুসারীদের সমতা নিশ্চিতে প্রতিশ্র“তিবদ্ধ দেশের সংবিধান। ধর্মনিরপেক্ষ আদালতে বলবৎ পারিবারিক আইনে বিভিন্ন ধর্মীয় গোষ্ঠীর জন্য আলাদা আলাদা বিধান রয়েছে। 


২০২৩ সালে মার্চে আহমদি মুসলিম নেতারা বলেন, আহমেদনগরে তাঁদের বার্ষিক সম্মেলনের সময় শত শত লোক আহমদি স¤প্রদায়ের ওপর আক্রমণ করে। এ সময় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং সরকারি কর্মকর্তারা তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছিল। ওই সহিংসতার ফলে দু’জন মারা যায়, কয়েক ডজন আহত হয় এবং শত শত আহমদির বাড়ি, একটি আহমদি মসজিদ এবং একটি আহমদীয় ক্লিনিক লুটপাট ও ধ্বংস করা হয়। পরবর্তীকালে, পুলিশ সহিংসতার কথিত উসকানিদাতাসহ হাজার হাজার অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে এবং ২০০ জনেরও বেশি ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে। 


ধর্মীয় সংখ্যালঘু স¤প্রদায়ের নেতাদের ভাষ্য, সরকার প্রায়ই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের (ডিএসএ) মতো আইন ব্যবহার করে মুসলিম জনগোষ্ঠীর ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের’ অভিযোগে ধর্মীয় সংখ্যালঘু গোষ্ঠীর সদস্যদের, বিশেষ করে হিন্দুদের লক্ষ্যবস্তু করে থাকে। প্রায় সব ক্ষেত্রেই, কথিত অবমাননাকর ফেসবুক পোস্টের জন্য আদালত ধর্মীয় সংখ্যালঘু সদস্যদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে, সংখ্যাগুরু স¤প্রদায়ের প্রতিশোধমূলক সহিংসতার বিরুদ্ধে নয়। ২০২৩ সালের বেশ কয়েকটি মামলায় এমন চিত্র দেখা গেছে। 
ডিএসএর নিপীড়নমূলক ধারা ও অপব্যবহার নিয়ে একের পর এক অভিযোগ আসতে থাকলে ২০২৩ সালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের (ডিএসএ) নাম পরিবর্তন করে সাইবার নিরাপত্তা আইন (সিএসএ) প্রণয়ন করা হয়। আইনটির মৌলিক বিষয়ে কোনো পরিবর্তন না আনায় ওই সময় একে প্রহসন বলে আখ্যা দেয় ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশসহ (টিআইবি) বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন ও বিশিষ্ট নাগরিকেরা। 
মুসলিম নেতারা বলেছেন, সরকার সারা দেশে ইমামদের নিয়োগ ও অপসারণকে প্রভাবিত করে চলেছে এবং খুতবার বিষয়বস্তু সম্পর্কে ইমামদের দিকনির্দেশনা দিয়েছে। সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ (বিএইচবিসিইউসি) স্বাধীনতার পর সরকার কর্তৃক নাগরিকদের (অধিকাংশ হিন্দু) বাজেয়াপ্ত সম্পত্তি পুনরুদ্ধার, জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন ও অতীতের নির্বাচনী প্রতিশ্র“তি বাস্তবায়নের দাবিতে অনশনের ঘোষণা দেয়। ওই সময় ধর্মীয় সংখ্যালঘু স¤প্রদায়ের নিরাপত্তার জন্য বিশেষ আইন প্রণয়ন এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের জন্য সরকারি চাকুরির কোটা ব্যবস্থা পুনর্বহালের দাবিও জানান তাঁরা। 
বাংলাদেশে ধর্মীয় সহনশীলতাকে উৎসাহিত করতে মার্কিন দূতাবাস জনসাধারণের প্রচার কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে এবং সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করেছে। দূতাবাসের কর্মকর্তারা দেশের ধর্মীয় স্বাধীনতার অবস্থা নিয়ে আলোচনা, ধর্মীয় সহনশীলতার গুরুত্বের ওপর জোর দিতে এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের চ্যালেঞ্জগুলো চিহ্নিত করতে বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠন এবং প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। 
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের (যারা অত্যধিক মুসলিম) এবং তাদের স্থানীয় আয়োজক স¤প্রদায়কে সহায়তার জন্য প্রায় ২৪৭ মিলিয়ন ডলার মানবিক সহায়তা দিয়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।





বিশেষ সংবাদ এর আরও খবর

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ঘাপটি মেরে থাকা চরমপন্থীরা আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ঘাপটি মেরে থাকা চরমপন্থীরা আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে
উপজেলা চেয়ারম্যানদের ৭৭ শতাংশই ব্যবসায়ী : সুজন উপজেলা চেয়ারম্যানদের ৭৭ শতাংশই ব্যবসায়ী : সুজন
পাইকগাছায় চিংড়ী খাত ধ্বংসের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে চিংড়ী ও মৎস্য খাত রক্ষায় বিভিন্ন সংগঠনের সাথে মতবিনিময় পাইকগাছায় চিংড়ী খাত ধ্বংসের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে চিংড়ী ও মৎস্য খাত রক্ষায় বিভিন্ন সংগঠনের সাথে মতবিনিময়
যেভাবে কারাগারের ছাদ ফুটো করে পালিয়ে যান ৪ কয়েদি যেভাবে কারাগারের ছাদ ফুটো করে পালিয়ে যান ৪ কয়েদি
ভয়াবহ লোডশেডিংয়ের কবলে পড়েছে পাইকগাছাবাসী ভয়াবহ লোডশেডিংয়ের কবলে পড়েছে পাইকগাছাবাসী
ঈদযাত্রায় ৯৯৮ কোটি ৫৫ লাখ ৩৭ হাজার টাকার মানবসম্পদের ক্ষতি : আরএসএফ ঈদযাত্রায় ৯৯৮ কোটি ৫৫ লাখ ৩৭ হাজার টাকার মানবসম্পদের ক্ষতি : আরএসএফ
পাইকগাছায় ভূমিহীন ও গৃহহীন ৩৫ পরিবারের মাঝে ঘর হস্তান্তর পাইকগাছায় ভূমিহীন ও গৃহহীন ৩৫ পরিবারের মাঝে ঘর হস্তান্তর
রেমালে তাষ্ডবে পাইকগাছায় গ্রামীণ অবকাঠামোর ৩৫ কি.মি.রাস্তা ক্ষতবিক্ষত রেমালে তাষ্ডবে পাইকগাছায় গ্রামীণ অবকাঠামোর ৩৫ কি.মি.রাস্তা ক্ষতবিক্ষত
খুলনা-মোংলা রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু; মোংলাবাসীর দুয়ারে হুইসেল দিয়ে আসবে ট্রেন খুলনা-মোংলা রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু; মোংলাবাসীর দুয়ারে হুইসেল দিয়ে আসবে ট্রেন

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)